| |

Ad

/ সম্পাদকীয়

রেলের টিকেটে অ্যাপ বিপর্যয় দ্রুত সমাধান করুন

May 24, 2019

সম্পাদকীয়: ঈদ যাত্রায় রেল মানুষের একটা বড় ভরসাস্থল। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে ঈদ যাত্রায় রেলের টিকেট যেন সোনার হরিণ হয়ে গিয়েছিল, কারণ আসনের তুলনায় যাত্রী বেশি। দালালদের দৌরাত্ম্য বেড়ে গিয়েছিল, এবার হয়রানি কমানোর জন্য সরকার বেশ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। যার মধ্যে অন্যতম ছিল একটি অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে ৫০ শতাংশ টিকেট বিক্রি। এ ছাড়া কমলাপুর ছাড়াও রাজধানীর আরো ৪টি স্থান থেকে টিকেট বিক্রির ব্যবস্থা করা। উদ্যোগ খারাপ ছিল না। এতে ভোগান্তি অনেক কমে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বাদ সেধেছে রেল অ্যাপ বিপর্যয়। বুধবার ছিল প্রথম টিকেট বিক্রয়ের দিন। প্রথম দিনেই ঢাকা এবং চট্টগ্রামে অ্যাপ বিপর্যয় দেখা দেয়। এতে দুর্ভোগ বেড়ে যায়। অ্যাপের মাধ্যমে টিকেট না কিনতে পেরে প্রত্যাশীরা সেই দৌড়ান কমলাপুরের দিকে, ফলে সেখানে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। তবে এখনো সময় আছে, দ্রুত ব্যবস্থা...

মশা নিধনের পাশাপাশি সচেতনতাও জরুরি

March 23, 2019

ডেস্ক নিউজঃ মশার উপদ্রবে অতিষ্ঠ রাজধানীবাসী। বাসাবাড়ি, দোকানপাট, স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত সর্বত্রই অসহনীয় মশার উপদ্রব। দেশের প্রধান বিমানবন্দরটির ভিআইপি লাউঞ্জ এমনকি বিমানের ভেতরেও পর্যন্ত মশার উপদ্রেবের খবর গণমাধ্যমগুলোতে দেখছি। মশার উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে দেশি-বিদেশি যাত্রীদেরও অভিযোগের শেষ নেই। মশা মুক্ত করতে সরকারপ্রধান থেকে শুরু করে দেশের উচ্চ আদালতেরও রয়েছে নির্দেশনা। কিন্তু কোনো সমাধানের পথ যেন নেই। মশা নিধনে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ হলেও এই টাকা ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। এ টাকার সদ্ব্যহার করা হলে মশার উপদ্রব এতটা ভয়াবহ আকার ধারণ করত না নিশ্চয়ই। মশক নিধন প্রক্রিয়ার অনিয়ম দূর করা সম্ভব না হলে রাজধানীতে মশার উপদ্রব যে আরো বাড়বে এতে কোনো সন্দেহ নেই। মশা বৃদ্ধির নানা কারণ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে শহর, বন্দর আর গ্রামের অবস্থা ভিন্নতর। প্রধানত...

কখনোই তাঁর অবদান ফুরিয়ে যাবে না

February 17, 2019

বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদ আর নেই। শুক্রবার রাতে ৮৩ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন কবি আল মাহমুদ। আল মাহমুদ ১৯৩৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে কবি, ঔপন্যাসিক, গল্পকার, প্রাবন্ধিক, শিশু সাহিত্যিক এবং সাংবাদিক ছিলেন। ১৯৭১ সালে আল মাহমুদ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন, কিন্তু স্বাধীনতার পর ১৯৭২ থেকে ৭৪ সাল পর্যন্ত সরকারবিরোধী সংবাদপত্র গণকণ্ঠের সম্পাদক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সরকার বিরোধী প্রচারণা চালানোর অভিযোগে আল মাহমুদ আটক হন এবং এক বছর কারাভোগ করেন। ১৯৭৫ সালে তিনি কারামুক্ত হলে বঙ্গবন্ধু তাকে শিল্পকলা একাডেমিতে চাকরি দেন। এখান থেকেই তিনি ১৯৯৩ সালে অবসর গ্রহণ করেন। বাংলা ভাষায় হাতে গোনা যে ক’জন কবি প্রাকৃতিকভাবে প্রতিভাবান আল মাহমুদ তাদের মধ্যে অন্যতম। বাংলাদেশের সাহিত্যাঙ্গনে কবি আল মাহমুদ একটা মহীরুহের মতো ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে জাতি...

জীবনে উন্নতি করতে চাইলে এই ৫ ধরণের বন্ধুর থেকে এড়িয়ে চলুন

July 24, 2018

জীবনে উন্নতি করতে চাইলে এই ৫ ধরণের বন্ধুর থেকে এড়িয়ে চলবেন। ১। নেতিবাচক বন্ধু  :-ভাল-খারাপ উভয়ই সংক্রামক। আপনি যদি ভাল বন্ধুর সাথে থাকেন, তবে তার ভাল গুণগুলো আপনার মাঝে সংক্রামিত হবে। ঠিক তেমনি আপনি যদি নেতিবাচক মানুষের সাথে সময় কাটান, তার নেতিবাচক মনোভাব আপনার মাঝে দেখা দেবে। আপনার বন্ধুটি যদি আপনাকে সারাক্ষণ বলে আপনি এই কাজটি পারবেন না, আপানাকে দ্বারা এই কাজটি হবে না- দেরী হওয়ার আগে তার সঙ্গ আজই ত্যাগ করুন। ২।:-তুলনাকারী:-বন্ধুত্বের মাঝে কিছুটা প্রতিযোগীতা থাকতে পারে, এটি খারাপ কিছু নয়। তবে তা যদি অভ্যাসে পরিণত হয়ে যায়, সেটি ক্ষতিকর। এই ধরণের বন্ধু সবসময় আপনার সাথে প্রতিযোগিতা করে থাকে। শুধু তাই নয়, আপনার সাফল্যে খুশি হওয়ার পরিবর্তে যে আপনাকে হিংসা করে থাকে। এই ধরণের বন্ধু থেকে সাবধান থাকবেন, যে কোন সময় যে আপনার ক্ষতি করে থাকতে পারে। ৩। অলস:- অলসতা অনেক...

দেশে হচ্ছে কি? শুধুই কি ধর্ষণ আর গনধর্ষণ!

May 10, 2018

লীড ডেস্কঃ কোথায় সেই স্বাধীনতা যা ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার জন্য লড়াই করে লক্ষাদিক শহিদের রক্তের ও মা-বোনের সম্ভম হানীর বিনিময়ে ছিনিয়ে এনেছি। স্বাধীনতা কি ছিনিয়ে এনেছি, এদেশে ধর্ষণের মত জঘন্য অপরাধের জন্য।স্কুল-কলেজে শিক্ষা অর্জনের জন্য গিয়ে শিক্ষকের হাতে ধর্ষিত হওয়ার জন্য।প্রভাবশালী সেচ্ছাসেবীদের ছায়া তলে সন্ত্রাসীদের বসবাসের জন্য।সন্ত্রাসীদের হাতে মা-বোনের সম্ভ্রম হানি ও স্থানে স্থানে পতিতালয়ের আশ্রম গড়ে তোলার জন্য।মায়ের সম্মুখে মেয়েকে, মেয়ের সম্মুখে মাকে, স্বামীর সম্মুখে স্ত্রীকে,ছেলের সম্মুখে মাকে গনধর্ষণ করার জন্য।হত দরিদ্র পরিবারের মেয়েদের চাকরি অথবা বিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ, গনধর্ষণের পর হত্যা কিংবা টাকার বিনিময়ে যৌনপল্লীতে বিক্রি করে দেওয়ার জন্য। স্বাধীনতা শুধুই কি মুক্ত আকাশে লাল সবুজের পতাকা উড়বার...

শাহাদাতের এ কেমন আচরণ, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মধ্যরাতে নিন্দার ঝড়!

September 12, 2015

এবার নিজ বাসার শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন করে গুরুতর আহতাবস্থায় রাস্তায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল জাতীয় দলের ক্রিকেটার শাহাদাত হোসেন রাজীবের উপর। এমন ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি এবং শাহাদাতকে গ্রেফতারের অভিযানও শুরু হয়েছে বলে মিরপুর থানার সূত্রে জানা গেছে। আর জাতীয় দলের পেসারের এমন কাণ্ডে ক্ষুদ্ধ বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ। এই ঘটনার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ঝড় উঠে। ভক্ত-অনুরাগীরা স্ট্যাটাসে ক্ষোভ ও শাহাদাত হোসেনের শাস্তির দাবী জানান। শাহাদাত হোসেনের এমন নির্মম আচরণের পর নাহিদ বুরহান নামের একজন লিখেছেন, রুবেলের পর এবার বোলার শাহাদাতের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনেছেন তার গৃহকর্মী। রুশাদ রাসেল লিখেছেন, শাহাদাত হোসেন রাজিব-ধিক্কার জানাই আপনাকে আর আপনার বউকে। ঐ বাচ্চা শিশুটার পা ধরে মাফ চাইলেও আপনার ক্ষমা...

সৌদি আরবের মক্কায় প্রচ‍ণ্ড ঝড়ে কন

September 12, 2015

সৌদি আরবের মক্কায় প্রচ‍ণ্ড ঝড়ে কনস্ট্রাকশনের কাজে ব্যবহৃত ক্রেন ছিঁড়ে ৬৫ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে শতাধিক। মাগরিবের নামাজের কিছুক্ষণ আগে থেকে ঝড় শুরু হয়। নামাজের পর থেকে ঝড়ের তীব্রতা বাড়তে থাকে। সন্ধ্যা ৭টার দিকে ক্রেনটি ছিঁড়ে পড়ে। এতে কমপক্ষে ৬৫ জন নিহত হয়। এদের মধ্যে অধিকাংশ হজ যাত্রী রয়েছে। তবে তাদের মধ্যে কোনো বাংলাদেশি আছে কিনা এখনো জানা যায়নি।...